বৃহস্পতিবার, মে ২৪, ২০১৮

গাইনোকোমেসিয়া বা পুরুষের বড় স্তন

গাইনোকোমেসিয়া বা পুরুষের বড় স্তন

পুরুষের স্তনের অস্বাভাবিক বৃদ্ধিকে গাইনোকোমেসিয়া বলে। নানা কারনে এটা হতে পারে। তারমধ্যে অন্তঃক্ষরা গ্রন্থির অস্বাভাবিক স্ত্রী হরমোন নিঃসরণ অন্যতম। পুরুষের অণ্ডকোষের টিউমার ও ক্লিনফেল্টারস সিন্ড্রমের জন্যও এটা হতে পারে। স্টেরয়েড জাতীয় ঔষধ খেলেও এটা হয়। অন্যান্য ঔষধ যেমন ডিজিটালিস, সিমিটিডিন ইত্যাদি খেলেও হতে পারে।

মানুষের জীবনচক্রের তিনটি সময়ে এটা বেশি হয়। প্রথম হয় জন্মের পর মায়ের হরমোনের জন্য। দ্বিতীয়বার হয় বয়সন্ধিকালে। এ সময়ে এটা সবচেয়ে বেশি হয়। এর ৮০% এমনিতেই ভাল হয়ে যায়। যারা ভাল হয় না তাদের শল্যচিকিৎসা লাগে। এ সময়ে যাদের এটা হয় তাদের মনঃদৈহিক নানা সমস্যা হয়। তাছাড়া তারা সামাজিক ভাবে মিশতে অসুবিধার সম্মুখিন হন ও তাদের আত্মবিশ্বাস কমে যায়। সর্বশেষ হয় বৃদ্ধ বয়সে। বৃদ্ধবয়সে এটা হয় টেসটস্টেরন হরমোন কমে যাওয়ার জন্য।

গাইনোকোমেসিয়ার চিকিৎসায় দুটি পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। একটি হচ্ছে লাইপসাকসন অর্থাৎ বিশেষ যন্ত্রের মাধ্যমে বড় হয়ে যাওয়া স্তনের চর্বি বের করে নেয়া হয়। এ পদ্ধতিতে অধিকাংশ গাইনোকমেশিয়ার চিকিৎসা করা সম্ভব। এতে কোন দাগ থাকে না, অপারেশনের পর দেখতেও অনেক ভাল লাগে। অপরটি অপারেশন করে চর্বি ও গ্লান্ড বের করে নেয়া। অনেক সময় লাইপোসাকশনে স্তনের সব চর্বি বের করা গেলেও গ্ল্যান্ড বের করা সম্ভব হয় না। তখন ছোট একটু কেটে গ্ল্যান্ড বের করতে হয়। একজন দক্ষ প্লাস্টিক সার্জন লাইপোসাকশনের পর এক ইঞ্চিরও ছোট ইন্সিশন(কেটে) দিয়ে পুরো অপারেশনটি করেন।

পূর্বে অনেকেই এই সমস্যায় ভুগলেও অসচেতনতার জন্য ও লজ্জায় এর চিকিৎসা করাতেন না। আপনার পরিচিত কেউ এই সমস্যায় ভুগলে একজন প্লাস্টিক সার্জনের পরামর্শ নিতে বলুন। এ সংক্রান্ত যেকোন প্রশ্ন বা জিজ্ঞাসা থাকলে মেসেজ করুন আমার ফেসবুক পেইজে www.facebook.com/wahidplastic । আপনার যেকোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে পারলে ও আপনাকে কোন সহায়তা করতে পারলে আমি অত্যন্ত খুশি হব।

image_print
FavoriteLoadingপ্রিয় পোস্টের তালিকায় নিন।

About The Author

মন্তব্য করুন