সোমবার, ডিসেম্বর ৯, ২০১৯

সিটি এ্যানজিওগ্রাম( CT Angiogram) এর ব্যাপারে সতর্কতা

সিটি এ্যানজিওগ্রাম( CT Angiogram) এর ব্যাপারে সতর্কতা

image_pdfimage_print

হৃদপিন্ডের রক্তনালির ব্লক নির্ণয় করবার জন্য নানান পদ্ধতি আছে। সবচেয়ে নিখুঁত ও নির্ভরযোগ্য হলো হাতের বা পায়ের ধমনী সুঁইয়ের মাধ্যমে ফুটো ( puncture) করে একটি সরু ক্যাথেটারের সাহায্যে হৃদপিন্ডের ধমনীগুলোকে অত্যন্ত পরিস্কারভাবে দৃশ্যমান করা। এই পদ্ধতির নাম করোনারী এ্যানজিওগ্রাফী। যেহেতু এটি একটি ইনভেসিভ পরীক্ষা তাই রোগীকে ১২ ঘন্টা বা তার অধিক হাসপাতালে অবস্থান করতে হয়। একটি সাধারণ এ্যানজিওগ্রাম করতে গড়ে ৩০ মিলি ডাই (contrast medium) ব্যবহার করতে হয় যা শরীরের জন্য খুবই সহনীয়। একটি মানসম্পন্ন স্বচ্ছ এ্যানজিওগ্রাম রোগীর হৃদরোগের চিকিৎসার জন্য খুবই জরুরী।
কিন্তু ইদানীং বাণিজ্যিক কারণে সিটি স্ক্যান মেশিনের সাহায্যে এ্যানজিওগ্রাম করার একটা প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এব্যাপারে সকলের সতর্ক থাকা প্রয়োজন।
একটি সিটি এ্যানজিওগ্রাম করতে গড়পড়তা ১০০ মিলি ডাই প্রয়োজন পড়ে যা শরীরের জন্য বিশেষ করে কিডনীর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। তাছাড়া সিটি এ্যানজিওগ্রামে প্রচুর বিকিরণ শরীরে প্রবেশ করে যা ভবিষ্যতে নানান রোগের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।
প্রায়শই দেখা যায় সিটি এ্যানজিওগ্রাম রিপোর্টে বিভিন্ন মাত্রার ব্লকের উল্লেখ থাকে যা নিশ্চিত করার জন্য পুনরায় ইনভেসিভ এ্যানজিওগ্রাম করা প্রয়োজন হয়ে পড়ে। তাতে ঝুঁকি ও খরচ দ্বিগুন হয়ে পড়ে।
শুধু তাই নয়। সিটি এ্যানজিওগ্রামে যেসব রিপোর্ট আমরা পাই পরবর্তীতে ইনভেসিভ এ্যানজিওগ্রামে তা প্রায়ই ভিন্নরূপ দেখা যায়।
এরকম ঘটনা দেখেছি যে, রোগী সিটি এ্যানজিওগ্রাম করে একটি ৯০% ব্লক নিয়ে আমাদের কাছে এসেছেন রিং লাগাতে। আমরা রিং লাগাতে প্রস্তুতি নিয়ে দেখি সম্পূর্ণ নরমাল ধমনী। আবার বিপরীতটাও মিলেছে। সিটি এ্যানজিওগ্রাম বলছে ছোট ছোট ব্লক, কিন্তু ইনভেসিভ এ্যানজিওগ্রাম করে দেখা গেল বড় বড় ব্লক।
তবে সিটি এ্যানজিওগ্রাম একটি পরীক্ষা যা বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে দক্ষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চিকিৎসক দ্বারা রিপোর্ট হলে তার একটি ভাল ব্যাবহার আছে। কিন্তু সেটি কখনোই ইনভেসিভ এ্যানজিওগ্রামের বিকল্প নয় ।

গতকাল এই লেখাটি পোস্ট করবার পরে অনেকেই বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মতামত দিয়েছেন। সবার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বলছি লেখাটি কোন পদ্ধতিকে ছোট করার জন্য বা গুরুত্বহীন করার চেষ্টা করা হয়নি। প্রতিটি পরীক্ষারই যথাযথ ব্যবহার আছে। তবে সেটি সঠিক ব্যক্তির জন্য করা হলে উপযুক্ত ফল পাওয়া যাবে। এখানে একই ব্যক্তির সিটি এ্যানজিওগ্রাম এবং ইনভেসিভ এ্যানজিওগ্রামের কয়েকটি রিপোর্ট তুলে ধরলাম। সিটি এ্যানজিওগ্রামের যথার্থতা আপনারাই যাচাই করুন।
সিটি এ্যানজিওগ্রাম বলছে রোগীর মেজর দুটি ধমনীতে (LAD and LCX) ৩০-৪০% এবং ২০% ব্লক আছে। অথচ ইনভেসিভ এ্যানজিওগ্রাম পরিষ্কার করে দেখাচ্ছে LAD 100% এবং LCX 80% (eighty) ব্লক রয়েছে।

FavoriteLoadingপ্রিয় পোস্টের তালিকায় নিন।

About The Author

মন্তব্য করুন