বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২১, ২০১৯

সিয়াম এবং স্বাস্থ্যঃ রোযার উপকারিতা

সিয়াম এবং স্বাস্থ্যঃ রোযার উপকারিতা

image_pdfimage_print

পবিত্র কুরআন শরীফে বলা হয়েছেঃ “হে মুমিনগণ, তোমাদের উপর সিয়াম বিধিবদ্ধ করা হয়েছে, যেমন করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের উপর যেন তোমরা তাকওয়া অর্জন করতে পারো।” -সূরা বাকারাহ; আয়াতঃ ১৮৩।

“সাওম” অর্থ বিরত থাকা। প্রবৃত্তিকে দমন করে তাকওয়ার গুণাবলী বিকাশের জন্য সাওমের মাধ্যমে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য প্রবৃত্তির ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হয়েছে। রোযার মাধ্যমে দৈহিক এবং আধ্যাত্মিক উন্নতি হয়। সমগ্র মাসব্যাপী সিয়াম সাধনা একজন মুসলমানকে সৃষ্টিকর্তার অধিকতর নৈকট্য অর্জন করতে সাহায্য করে; স্রস্টার নানাবিধ নিয়ামত সম্পর্কে কৃতজ্ঞতাবোধ জাগ্রত করে; গরীব-অসহায়দের সাহায্য-সহযোগিতা করতে উদ্বুদ্ধ করে এবং আত্মনিয়ন্ত্রণের শিক্ষা দেয়।

অনেকে রমযান মাসকে জীবনাচরণ পরিবর্তন এবং পরিশুদ্ধ করার সুযোগ হিসেবে গ্রহণ করেন। যেমন-যাদের ধূমপানের অভ্যাস রয়েছে তারা এই একমাসে ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার অভ্যাস রপ্ত করার চেষ্টা করেন। অনেকে স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস করার জন্য কিংবা শরীরের ওজন কমানোর কৌশল হিসেবে গ্রহণ করেন। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে ইবাদত-বন্দেগীর মাধ্যমে সকলে রমযান মাসে আত্মিক ও আধ্যাত্মিক উন্নতি অর্জনের চেষ্টা করেন এবং এর মাধ্যমে রোযা পালনকারী ব্যক্তি মানসিক তৃপ্তি এবং প্রশান্তি অর্জন করেন।

 

FavoriteLoadingপ্রিয় পোস্টের তালিকায় নিন।

About The Author

মন্তব্য করুন