রবিবার, জুন ২৩, ২০১৯

দেশে দেশে স্বাস্থ্য সেবায় সহিংসতা ৪[মধ্যপ্রাচ্য]

দেশে দেশে স্বাস্থ্য সেবায় সহিংসতা ৪[মধ্যপ্রাচ্য]

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলিতে স্বাস্থ্যসেবায় সহিংসতা সম্পর্কে তথ্য খুব একটা পাওয়া যায় না। এজন্য প্রকৃত পরিস্থিতি সম্পর্কে অনুমান করা কঠিন। তবে সৌদি আরব এবং কুয়েতের স্বাস্থ্যসেবায় সহিংসতার ওপর নির্ভরযোগ্য প্রকাশনা রয়েছে।

প্রথমে সৌদি আরবের কথা বলা যেতে পারে। ২০১১ সালে রিয়াদের দুটি সরকারী হাসপাতালের ৬০০ চিকিৎসক, নার্স এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীকে হয়রানি এবং সহিংসতা সম্পর্কে একটি জরীপের প্রশ্নমালা পূরণ করতে দেওয়া হয়েছিল। মাত্র ৩৮৩ জন উত্তর দিয়েছিলেন। তাদের প্রতি ৩ জনের মধ্যে ২ জনই স্বীকার করেছেন যে বিগত ১২ মাসে তারা কোন না কোন পর্যায়ে রোগী কিংবা তাদের সঙ্গের লোকদের দ্বারা কটু কথা কিংবা শারীরিক নিগ্রহের শিকার হয়েছেন। চিকিৎসকদের চেয়ে হাসপাতালের নার্সদের এমন অভিযোগের হার বেশী। চিকিৎসকের সাক্ষাত পেতে অতিরিক্ত দেরী হওয়া, হাসপাতালে কর্মচারীর অভাব, সেবা প্রাপ্তিতে রোগীদের অসন্তুষ্টি ইত্যাদি কারণেই এধরণের ঘটনার উদ্ভব হচ্ছে বলে তারা মনে করছেন।

কুয়েত মধ্যপ্রাচ্যের একটি ধনী দেশ। কুয়েতের চিকিৎসকদের ওপর নিগ্রহের তথ্য একটি ইউরোপীয় জার্নালে ১৯৯৯ সালে প্রকাশিত হয়েছিল। সে সময়ের পর্যবেক্ষণের ফলাফলেই দেখা গিয়েছিল যে ৮৬ শতাংশ চিকিৎসক মৌখিক হুমকির মুখোমুখি হয়েছেন, ২৮ শতাংশ শারীরিক নিগ্রহের শিকার হয়েছেন এবং ৭ শতাংশ চিকিৎসক গুরুতর শারীরিক হামলার মুখে পড়েছেন। তারা ৭৮১ টি হামলার ঘটনা রিপোর্ট করেছেন। এরমধ্যে ৭৩ টি ক্ষেত্রে চিকিৎসকের ওপর শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে।

তথ্যসূত্রঃ
• Algwaiz WM, Alghanim SA. Violence exposure among healthcare professionals in Saudi Public Hospitals. A preliminary investigation. Saudi Med J 2012;33(1):76-82.
• Al-Sahlwai KS, Zahid MA, Shahid AA, Hatim M, Al-Bader M. Violence against doctors: Study of violence against doctors in accident and emergency departments. Eur J Emerg Med 1999;6(4):301-304.

image_print
FavoriteLoadingপ্রিয় পোস্টের তালিকায় নিন।

About The Author

মন্তব্য করুন